সোমবার, ২২ এপ্রিল ২০২৪, ১১:২১ পূর্বাহ্ন

মোহনগঞ্জে দুপুর দেড়টায় স্কুল ছুটি দিয়ে তালা ঝুলিয়ে স্কুল ত্যাগ শিক্ষকদের নামে শোকজ

রিপোর্টারের নাম:
  • আপডেট : বুধবার, ৩ মে, ২০২৩
  • ৩০৫ পঠিত

মোহনগঞ্জ সংবাদদাতা ঃ নেত্রকোনার মোহনগঞ্জ উপজেলার ৬ নং সুয়াইর ইউনিয়নের ভাটি সুয়াইর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকসহ সকল শিক্ষককে নির্ধারিত সময়ের আগেই বিদ্যালয় ছুটি দিয়ে তালা মেরে বাড়ি চলে যাওয়ায় শোকজ করা হয়েছে। কৈফিয়ত তলব চিঠি প্রাপ্তির আগমী পাঁচ কর্মদিবসের মধ্যে তাদের শোকজের জবাব দিতে বলা হয়েছে। মোহনগঞ্জ উপজেলা সহকারী প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা বিপ্লব সরকার মঙ্গলবার বিকেলে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

এর আগে ৩০ এপ্রিল প্রধান শিক্ষকসহ চার শিক্ষককে এ শোকজ করা হয়। সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, গত ২৭ এপ্রিল বৃহস্পতিবার দুপুর দেড়টায় স্কুল ছুটি দিয়ে বাড়ি চলে যান শিক্ষকরা।

এ বিষয়টি স্থানীয় এক সচেতন যুবক ও উপজেলা সেচ্ছাসেবক লীগের নেতা সোলায়মান চৌধুরী রুমান তালা মারা দেখে সঙ্গে সঙ্গে শিক্ষা অফিসকে অবিহিত করেন। তিনি জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসারকে মোবাইলের মাধ্যমে বিষয়টি অবহিত করেন এবং স্থানীয় কয়েকজন সাংবাদিককে অবহিত সহ ভিডিওটি প্রদান করেন । ভিডিও ধারণ করে ফেসবুকে পোস্ট করেন। অনেকেই ফোনে বিষয়টি শিক্ষা কর্মকর্তাকে জানান। সহকারি উপজেলা শিক্ষা অফিসার বিপ্লব সরকার অভিযোগের সত্যতা পেয়ে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক নাছিমা আক্তারকে ফোনে বিষয়টি জানান।

বিপ্লব সরকার তাৎক্ষণিকভাবে স্কুলটি পুনরায় খোলার নির্দেশ দেন। কিন্তু সহকারী উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তার কথায় কর্ণপাত করেননি ঐ স্কুলের প্রধান (ভারপ্রাপ্ত) সহ অন্যান্য শিক্ষকরা। ঐদিন (বৃহস্পতিবার) বিকালে আর স্কুল খোলেন নি।

এ ঘটনায় কৈফিয়ত তলব করেন সহকারি উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা। ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক নাছিমা আক্তার বলেন, কৈফিয়ত তলবের নোটিশ আজ মঙ্গলবার পর্যন্ত পাইনি। তবে নির্ধারিত সময়ের আগে স্কুল বন্ধ করে তালা মেরে আমরা স্কুল ত্যাগ করা ঠিক হয়নি। বিষয়টি নিয়ে আমি ব্যক্তিগতভাবে দুঃখিত ও লজ্জিত।

আমার চাকরি জীবনে ইহা প্রথম অনিয়ম । জানা যায়, ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক নাছিমা আক্তার, সহকারী শিক্ষক মোঃ জসীমউদ্দীন, মেরিন আক্তার, রাজীবুল ইসলাম খান কে শোকজ করা হয়েছে। উপজেলা সহকারী প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা বিপ্লব সরকার বলেন, এ বিষয়ে সন্তোষজনক জবাব না পেলে তাদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তার কাছে সুপারিশ করা হবে। ভারপ্রাপ্ত উপজেলা শিক্ষা অফিসার বিশ্বজিৎ সাহা বলেন, তাদের জবাব আমার হস্তগত হলে এবং সন্তোষজনক না হলে ব্যবস্থা নেয়ার জন্য জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসারের নিকট আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়ার জন্য সুপারিশ করা হবে ।

শেয়ার করুন:

এ জাতীয় আরও সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এক ক্লিকে বিভাগের খবর

© All rights reserved © 2021 dainikjananetra
কারিগরি সহযোগিতায় পূর্বকন্ঠ আইটি