মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ১১:৩২ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
বারহাট্টায় উত্তেজিত যাত্রীদের ধাওয়া; স্টেশন মাস্টারের স্টেশন ত্যাগ আটপাড়ায় স্কুলের সভাপতি নির্বাচন বন্ধ করতে ২ শিক্ষককে অপহরণের অভিযোগ নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি আবশ্যক নেত্রকোণার মিডিয়া ব্যাক্তিত্ব মুখলেছের পিতা-মাতার রুহের মাগফেরাত কামনায় দোয়া ও ইফতার অনুষ্ঠিত আটপাড়ায় দরপত্রে অংশ গ্রহণকারী সমিতিকে  ইজারা না দিতে আবেদন আটপাড়ায়  ঈমাম ও উলামা পরিষদের সীরাতুন্নবী ( সাঃ) অনুষ্টিত নেত্রকোনায় মাহে-রমজানের পবিত্রতা রক্ষা ও ইসরাইলী পন্য বর্জনের দাবীতে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ পূর্বধলায় মাধ্যমিকে’র প্রশিক্ষণে সার্পোট স্টাফের স্বাক্ষর জালসহ টাকা আত্মসাৎ এর অভিযোগ মহুয়া সাহিত্য টিপস্

কলমাকান্দায় সরকারি ৪শত গাছ কেটে নেওয়ায় চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে অভিযোগ

রিপোর্টারের নাম:
  • আপডেট : মঙ্গলবার, ৮ মার্চ, ২০২২
  • ২৫৭ পঠিত

কলমাকান্দা প্রতিনিধিঃ নেত্রকোণার কলমাকান্দা উপজেলায় সরকারি প্রায় ৪শত মেহগনি ও নিম গাছ কেটে নিয়ে বিক্রি করে দেয়ার অভিযোগ উঠেছে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান জয়নাল আবেদীনের বিরুদ্ধে। আজ সোমবার বিকেলে উপজেলার ৭নং কৈলাটী ইউনিয়নের নাওয়ারীপাড়া, জামসেন, বেনুয়া এলাকার উল্টা পীরের মাজার হতে আনোয়ার চেয়ারম্যানের বাড়ি হয়ে কাদির পীরের বাড়ি পর্যন্ত প্রায় ২ কিলোমিটার সড়কের সরকারী প্রায় ৪শত মেহগনি ও নিম গাছ কেটে ফেলা হয়েছে।

কৈলাটী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান জয়নাল আবেদীন এই গাছ কেটে নিয়ে গেছে বলে জানায় স্থানীয়রা। এতে করে পরিবেশের মারাত্মক ক্ষতি হচ্ছে বলে মনে করেন সচেতন মহল। স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, গত ক’দিন যাবত উক্ত সড়কের গাছ কাটতে শুরু করেন স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান জয়নাল আবেদীন। সোমবার পর্যন্ত প্রায় ৪ শত মেহগনি ও নিম গাছ সড়কে কেটে ফেলে রাখে বেনুয়া গ্রামের মোঃ সিদ্দিক মিয়াসহ আরো অনেকে জানান, ‘ঐ সড়কের প্রায় ৪শত মেহগনি ও নিম গাছ চেয়ারম্যানের নেতৃত্বে দিনে ও রাতের আঁধারে কেটে নিয়ে যায়।

কৈলাটী ইউনিয়নের ভূমি সহকারী কর্মকর্তা মোঃ আলী আজগর বলেন, ‘খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে সড়কের পশে সরকারি কাটা অনেক গাছ পড়ে থাকতে দেখতে পাই। আরো গাছ নিয়ে গেছে। তবে বিষয়টি উর্ধতন কর্তৃপক্ষের সাথে আলোচনা করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে বলেও জানান তিনি।’ কলমাকান্দা উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা সোহেল রানা বলেন, ‘বিষয়টি শুনেছি। তবে স্থানীয় চেয়ারম্যান বিষয়টি অস্বীকার করেছেন। সংশ্লিষ্ঠ এলাকার ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তাকে বিষয়টি জানার জন্য নির্দেশ দেয়া হয়েছে। পরবর্তীতে তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।’ ইউনিয়ন চেয়ারম্যান জয়নাল আবেদীন জানান অনেক আগে স্থানীয় লোক জন ইউনিয়ন পরিষদ বা বনবিভাগের অনুমতি ছাড়া বৃক্ষরোপন করে এবং বতর্মানে স্থানীয় জনগন তা কেটেছে, আমি নিজে উপজেলা নির্বাহি কর্মকর্তাকে লিখিত জানিয়েছি। আমি গাছ কাটিনি।

শেয়ার করুন:

এ জাতীয় আরও সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এক ক্লিকে বিভাগের খবর

© All rights reserved © 2021 dainikjananetra
কারিগরি সহযোগিতায় পূর্বকন্ঠ আইটি